পাইলস রোগের কারণ, লক্ষণ ও প্রতিকার কি?

পাইলস, যা হেমোরয়েডস নামেও পরিচিত, মলদ্বার এবং মলদ্বারে ফুলে যাওয়া এবং স্ফীত শিরা যার ফলে অস্বস্তি এবং রক্তপাত হয়। এগুলি অভ্যন্তরীণ হতে পারে, মলদ্বারের ভিতরে ঘটতে পারে, বা বাহ্যিক, মলদ্বারের চারপাশে ত্বকের নীচে তৈরি হতে পারে। পাইলসের কিছু সাধারণ কারণ, লক্ষণ এবং চিকিৎসা এখানে দেওয়া হল:


পাইলসের কারণসমূহ:

মলত্যাগের সময় স্ট্রেনিং:

এটি একটি সাধারণ কারণ, প্রায়ই কোষ্ঠকাঠিন্যের সাথে যুক্ত।


দীর্ঘস্থায়ী ডায়রিয়া বা কোষ্ঠকাঠিন্য:

উভয় অবস্থাই হেমোরয়েডের বিকাশে অবদান রাখতে পারে।


গর্ভাবস্থা:

শ্রোণী শিরাগুলির উপর চাপ বৃদ্ধি এবং গর্ভাবস্থায় হরমোনের পরিবর্তনের কারণে পাইলসের বিকাশ হতে পারে।


স্থূলতা:

অতিরিক্ত ওজন মলদ্বার এবং মলদ্বারে চাপ বাড়াতে অবদান রাখতে পারে।


দীর্ঘ সময় ধরে বসে থাকা:

দীর্ঘক্ষণ বসে থাকা, বিশেষ করে টয়লেটে, অর্শ্বরোগের বিকাশে অবদান রাখতে পারে।


জিনগত কারণ:

কিছু লোকের পাইলস হওয়ার জন্য জেনেটিক প্রবণতা থাকতে পারে।


পাইলসের লক্ষণ:

মলত্যাগের সময় রক্তপাত:

এটি একটি সাধারণ উপসর্গ এবং টয়লেট পেপারে বা টয়লেট বাটিতে রক্ত দেখা যেতে পারে।


পায়ু অঞ্চলে চুলকানি বা জ্বালা:

পাইলস অস্বস্তি এবং চুলকানির কারণ হতে পারে।


ব্যথা বা অস্বস্তি:

হেমোরয়েড বেদনাদায়ক হতে পারে, বিশেষ করে মলত্যাগের সময় বা বসে থাকার সময়।


মলদ্বারের চারপাশে ফোলা বা পিণ্ড:

বাহ্যিক হেমোরয়েডগুলি মলদ্বারের চারপাশে পিণ্ড বা ফোলা হিসাবে অনুভূত হতে পারে।


শ্লেষ্মা স্রাব:

কিছু লোক মলদ্বার থেকে মিউকাস স্রাব অনুভব করতে পারে।



পাইলসের চিকিৎসা:

খাদ্যতালিকাগত পরিবর্তন:

ফল, শাকসবজি এবং পুরো শস্যের মাধ্যমে ফাইবার গ্রহণের পরিমাণ বৃদ্ধি কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধ করতে এবং মলকে নরম করতে সাহায্য করতে পারে।


হাইড্রেশন:

প্রচুর পানি পান করা নরম এবং নিয়মিত মলত্যাগ বজায় রাখতে সাহায্য করে।


সাময়িক চিকিৎসা:

ওভার-দ্য-কাউন্টার ক্রিম, মলম, বা প্যাডযুক্ত উইচ হ্যাজেল বা হাইড্রোকোর্টিসোন লক্ষণগুলি উপশম করতে সহায়তা করতে পারে।


উষ্ণ স্নান:

উষ্ণ স্নানে (সিটজ বাথ) ভিজিয়ে রাখলে ব্যথা এবং অস্বস্তি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।


মল সফটনার:

এগুলি মলত্যাগকে আরও আরামদায়ক করতে সাহায্য করতে পারে।


লাইফস্টাইল পরিবর্তন:

দীর্ঘক্ষণ বসা এড়ানো, বিশেষ করে টয়লেটে, এবং স্বাস্থ্যকর ওজন বজায় রাখা উপসর্গগুলি প্রতিরোধ এবং উপশম করতে সাহায্য করতে পারে।


চিকিৎসা পদ্ধতি:

আরো গুরুতর ক্ষেত্রে, রাবার ব্যান্ড লাইগেশন, স্ক্লেরোথেরাপি বা অস্ত্রোপচার অপসারণের মতো চিকিৎসা পদ্ধতির সুপারিশ করা যেতে পারে।


অবস্থার তীব্রতার উপর ভিত্তি করে একটি সঠিক নির্ণয় এবং উপযুক্ত চিকিৎসার জন্য একজন স্বাস্থ্যসেবা পেশাদারের সাথে পরামর্শ করা অপরিহার্য। আপনি যদি ক্রমাগত বা গুরুতর উপসর্গগুলি অনুভব করেন, অবিলম্বে চিকিৎসার পরামর্শ নিন।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ